মালয়েশিয়ায় নির্বাচনে মাহাথির মোহাম্মদের মহাকাব্যিক জয়

আমার ফরিদপুর ডেস্কঃ বৃহস্পতিবার, ১০ মে ২০১৮

দক্ষিণ এশিয়ার রাজনীতিতে মাহাথির উজ্জ্বল এক নাম। তার হাত ধরেই আধুনিক মালয়েশিয়ার গোড়াপত্তন হয়। দীর্ঘ ১৫ বছর রাজনীতি থেকে দূরে থাকা মাহাথির বিন মোহাম্মদ আবারও প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নিতে যাচ্ছেন। মালয়েশিয়ার সাধারণ নির্বাচনে জয় পেয়েছে মাহাথির মোহাম্মদের নেতৃত্বাধীন বিরোধী জোট পাকাতুন হারাপান (পিএইচ)। মালয়েশিয়ার ইতিহাসে প্রথমবারের মতো কোনো বিরোধী দল সরকার গঠন করতে যাচ্ছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত পাকাতুন হারাপান (পিএইচ) ১২১টি আসন পেয়ে বিজয়ী হয়েছে। ২২২টি আসনের মধ্যে তারা ১২১টি আসন পায় বলে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। সরকার গঠনের জন্য নিয়ম অনুযায়ী ১১২টি আসনে জয় পাওয়ার দরকার ছিল। অন্যদিকে ক্ষমতাসীন বারিসান ন্যাশনাল ৭৯টি আসন লাভ করেছে বলে এএফপির খবরে বলা হয়েছে।

সিরিয়ার আইএস ঘাঁটিতে ইরাকের বিমান হামলা

স্টাফ রিপোর্টারঃ ইরাক অঞ্চলের সুরক্ষার খাতিরেই সিরিয়ার আইএস ঘাঁটিতে বিমান হামলা চালানো হয়েছে। ইরাকের প্রধানমন্ত্রী হায়দর আল আবাদির দফতর জানিয়েছেন, নিজদের সুরক্ষার জন্যই এই হামলা চালানোহয়।বৃহস্পতিবার সকালে ইরাকি এফ-১৬ যুদ্ধবিমান সিরিয়া সীমান্ত অতিক্রম করে আইএসের ঘাঁটিগুলোতে অভিযান চালায়। তাদের সহযোগিতা করে সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের সেনাবাহিনীও।

নির্বাচন সামনে রেখে ইরাকের দিওয়ানিয়া প্রদেশে প্রচারে গিয়ে বিমান হমলার সাফল্যের জন্য বিমানবাহিনীর প্রশংসা করে আবাদি প্রতিশ্রুতি দেন বিধ্বস্ত এলাকা পুনর্গঠনের। মৃত সেনাদের পরিবারের দেখভাল করা এবং জমিদান করে তাদের সুরক্ষিত করার প্রতিশ্রুতিও দেন তিনি। তবে নির্বাচনী প্রচারের জন্য আপাতত সেই প্রক্রিয়া স্থগিত রয়েছে বলে জানান তিনি। চলতি মাসের শুরুতেই আবাদি বলেছিলেন, আইএস জঙ্গিদের খতম করতে তার সেনাবাহিনী যাবতীয় পদক্ষেপ নেবে। চলতি সপ্তাহেই নতুন করে তিনি বলেন, আইএস নির্মূলে সিরিয়ার পূর্বাঞ্চলে অভিযান চালানো হবে। আসাদ সরকারের সহযোগিতায় এ অভিযান চলবে।

ইরাকের প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ইরাকের পূর্ব সীমানে্ত আইএস আবারও ফিরে আসতে পারে। আর এমন ঘটনা ঘটলে তা হবে ইরাকের জন্য প্রকৃত হুমকি। আমাদের কাছে তথ্য আছে আইএসের কিছু সদস্য সিরিয়ার পূর্বাঞ্চল দিয়ে ইরাকে হামলা চালাতে চায়। তারা সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইরাকে আত্মঘাতী হামলা চালাবে। এমন ঘোষণার কয়েক দিন পর বৃহস্কতিবার হামলা চালাল ইরাকি বাহিনী। এর আগে ইরাকের বাহিনী ‌হাশদ আশ-শাবি' সিরিয়া সীমান্তেবেশ কয়েক দফায় সন্ত্রাসবিরোধী অভিযান চালায়।

২০১৪ সালের জুলাইয়ে ইরাক ও সিরিয়ায় আইএসের উত্থান ঘটে। কয়েক মাসের ব্যবধানে দেশ দুটির উত্তর-পূর্বাঞ্চলের বিশাল এলাকা দখলে নিয়ে রাকা শহরকে রাজধানী ঘোষণা করে ‌'ইসলামিক স্টেট' নামে স্বতন্ত্র রাষ্ট্রের ঘোষণা করে জঙ্গিগোষ্ঠীটি। ২০১৫ সাল থেকে পশ্চিমা দেশগুলোর সঙ্গে যেৌথভাবে আইএসের বিরুদ্ধে লড়াই শুরু করে ইরাক সরকার।

সিরিয়ায় বাড়ছে জটিলতা, সৈন্য ফেরাতে পারছে না যুক্তরাষ্ট্র

স্টাফ রিপোর্টারঃ যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সিরিয়া থেকে মার্কিন সেনাদের শিগগিরই ফিরিয়ে নেয়ার কথা বললেও সেটা এখনই বাস্তবায়ন করা সম্ভব হচ্ছে না। কারণ সেখানে জঙ্গি সংগঠন আইএস এর ঝুঁকি রয়েছেই। অন্যদিকে রাশিয়া, ইরান এবং তুরস্কের অবস্থানের কারণে সিরিয়ায় নতুন মেরুকরণ হচ্ছে। সব মিলিয়ে সিরিয়া নিয়ে জটিলতা বাড়ছে।এমন প্রেক্ষাপটে ট্রাম্প চাইলেও সিরিয়া থেকে শিগগিরই মার্কিন সেনাদের ফিরিয়ে আনা সম্ভব হবে কিনা, সেই প্রশ্ন এখন উঠছে।

দেখা গেছে, গত সপ্তাহেই ডোনাল্ড ট্রাম্প সিরিয়া থেকে মার্কিন সেনাদের দ্রুত সরিয়ে আনার কথা বলেছিলেন। অল্প সময়ের মধ্যেই তিনি তার অবস্থান পাল্টিয়েছেন।যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা বলছেন, ট্রাম্প নিরাপত্তা পরিষদ এবং উপদেষ্টাদের সাথে যে বৈঠক করেছেন, সেখানে জঙ্গি গোষ্ঠী আইএস এর ঝুঁকির বিষয় আলোচনায় এসেছে। আর এই আলোচনায় উপদেষ্টারা আইএস এর ঝুঁকি সম্পর্কে ট্রাম্পকে বোঝাতে সক্ষম হয়েছেন।সে কারণে তিনি অবস্থান থেকে সরে এসে সিরিয়ায় অনির্দিষ্টকালের জন্য মার্কিন সেনাদের রাখতে রাজি হয়েছেন বলা হচ্ছে। 

সিরিয়ায় প্রায় দুই হাজার মার্কিন সেনা রয়েছে। পূর্ব সিরিয়ায় কুর্দিস এবং আরব মিলিশিয়াদের সম্মিলিত বাহিনী সিরিয়ান ডেমোক্রেটিক ফোর্স নাম নিয়ে আইএস এর বিরুদ্ধে যুদ্ধ করছে। তাদের সমর্থনে কাজ করছে মার্কিন সৈন্যরা।

জটিলতা আসলে কোথায়?

মার্কিন সেনারা তাদের স্থানীয় মিত্রদের সাথে পূর্ব সিরিয়া দখলে নিয়েছে। কিন্তু আইএস যে নির্মূল হয়েছে, সেটা কেউ বলতে পারছে না। আইএস এর ঝুঁকি থাকছেই। তারা সিরিয়ার অন্য এলাকায় সরে পড়েছে। ফলে যুদ্ধ শেষ হয়ে গেছে বলে মি: ট্রাম্প যা বলছেন, মাঠে সেই পরিস্থিতি এখনও হয়নি।

সিরিয়ায় যুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্র গুরুত্বপূর্ণ একটি শক্তি। তবে যুক্তরাষ্ট্র সেখানে মুল ভূমিকায় নেই। যদিও তুরস্ক এবং রাশিয়া ও ইরান সিরিয়ায় যুদ্ধক্ষেত্রে পরস্পর বিরুদ্ধ পক্ষকে সমর্থন দিচ্ছে। 

কিন্তু এই তিন দেশ শীর্ষ বৈঠক করে সিরিয়ায় স্থিতিশীলতা ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ ত্বরান্বিত করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। তাদের এই অবস্থান নতুন মেরুকরণ বলে বলা হচ্ছে। দেশ তিনটির সৈন্যরা সিরিয়ায় দীর্ঘ সময় থাকবে সেই ইঙ্গিতও তারা দিয়েছে। এ ধরণের পরিস্থিতিতে যুক্তরাষ্ট্রের সৈন্যদেরও অনির্দিষ্টকালের জন্য সিরিয়ায় থাকতে হতে পারে।-বিবিসি

আমেরিকার ভেটোতে ফের আটকে গেল ইসরায়েলি গণহত্যার তদন্ত

স্টাফ রিপোর্টার: ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা সীমান্তে ইসরায়েলের গণহত্যার বিষয়ে তদন্ত চেয়ে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে তোলা খসড়া প্রস্তাব ফের আটকে দিয়েছে আমেরিকা। নিরাপত্তা পরিষদের অপর ১৪ সদস্য খসড়া প্রস্তাবকে স্বাগত জানালেও আমেরিকা একাই তাতে ভেটো দিয়েছে।গাজার নিরস্ত্র জনগণের ওপর ইসরায়েল সেনাদের হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে তদন্তের জন্য কুয়েত ফের এ প্রস্তাব তুলেছিল।

গত শুক্রবার থেকে ফিলিস্তিনি ভূমি দিবস উপলক্ষে গাজার অধিবাসীরা ইসরায়েল সীমান্তের কাছে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছেন। ওই কর্মসূচিতে অংশ নেয়া লোকজনের ওপর নির্বিচারে হত্যাকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে ইসরায়েলি সেনারা এবং এ পর্যন্ত অন্তত ৩১ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। এ বিষয়ে আন্তর্জাতিক আইনের আওতায় স্বাধীন ও স্বচ্ছ তদন্ত চেয়ে কুয়েত নিরাপত্তা পরিষদে খসড়া প্রস্তাবটি উত্থাপন করে।প্রস্তাবটি পাস হলে জাতিসংঘ মহাসচিব গণহত্যার বিষয়ে স্বাধীন তদন্তের পদক্ষেপ নিতেন। 

জাতিসংঘে নিযুক্ত ফিলিস্তিনের প্রতিনিধি রিয়াদ মানসুর বলেছেন, আমেরিকা অত্যন্ত দায়িত্বজ্ঞানহীন পদক্ষেপ নিয়েছে। এর মাধ্যমে ইসরায়েলকে গণহত্যা অব্যাহত রাখার সবুজ সংকেত দেওয়া হয়েছে।এর আগে গত সপ্তাহে একই ধরনের একটি খসড়া প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে আমেরিকা।-রেডিও তেহরান

মালয়েশিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় ২ বাংলাদেশি নিহত

স্টাফ রিপোর্টারঃ মালয়েশিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় দুই বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন আরও ছয়জন।বৃহস্পতিবার সকালে দেশটির পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য পাহাংয়ের মহাসড়কে একটি গাড়ি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ছিটকে গেলে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় পুলিশ কর্মকর্তা জানদিন মাহমুদ জানান, নিহতদের মধ্যে এক বাংলাদেশির পরিচয় জানা গেছে। তার নাম হোসেইন ফরহাদ। বয়স ৩৬ বছর। ফরহাদ মালয়েশিয়ায় চুক্তিভিত্তিক শ্রমিক হিসেবে কাজ করতেন। এছাড়া বাকিদের পরিচয় নিশ্চিত কাজ চলছে বলে জানান তিনি।

আফগানিস্তানে একাধিক হামলায় ৪৮ জঙ্গি নিহত, আটক ১৩

স্টাফ রিপোর্টারঃ আফগানিস্তানে আকাশ ও স্থল পথে একাধিক হামলা চালিয়ে শনিবার ৪৮ জন জঙ্গিকে হত্যা করেছে দেশটির সেনারা। এদের জঙ্গিদের মধ্যে ১৪ জন আইএস জঙ্গি বলে জানা গেছে। এছাড়া এই হামলায় তিনজন আহত হয়েছে। পাশাপাশি ১৩ জন জঙ্গিকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়েছে বলে জানা গেছে। 

এ ক্যাপারে আফগানিস্তানের ন্যাশনাল ডিফেন্স ও সিকিওরিটি ফোর্স জানিয়েছে ১০টি ক্লিয়ারেন্স অপারেশন ও ১২টি বিশেষ অপারেশন চালায় আফগান সেনারা। গত ২৪ ঘন্টায় ৯টি প্রদেশে হামলা চালানো হয়। প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়কে উদ্ধৃত করে এ খবর জানিয়েছে স্থানীয় সংবাদ সংস্থা টোলো নিউজ।নানগারহার, কান্দাহার, পাকতিয়া, কুনার, উরুজগান, ঝাবুল, ফারাহ, বাগদিস, ফারিয়াবের মতো প্রদেশগুলোতে হামলা চলে বলে জানানো হয়েছে। টোলো নিউজ সূত্রে খবর শুক্রবার গভীর রাত থেকে হামলা শুরু হয়, শনিবার সারাদিন এই হামলার চলে।সূত্র জানিয়েছে, জঙ্গিদের ঘাঁটিগুলোকে লক্ষ্য করে অভিযান চলে। তিনটিও বেশি জঙ্গি ঘাঁটি উড়িয়ে দেওয়া সম্ভব হয়েছে বলে জানা গেছে।

প্রতিষ্ঠাতা : মরহুম সাংবাদিক আরিফ ইসলাম।
প্রকাশক: ওয়াহিদ সোহেল।
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : ইবনে সৈয়দ পিন্টু।
নির্বাহী সম্পাদক : রাজিব খান। বার্তা সম্পাদক : রুমন রহমান
যোগাযোগ : ১০৭/১, কাকরাইল, ঢাকা-১২১৭।
ইমেইল : AmarFaridpur@gmail.com