পাটুরিয়া-দৌলতদিয়ায় তীব্র যানজট

বিশেষ প্রতিনিধি।
পাটুরিয়া-দৌলতদিয়ায় পদ্মা নদীর নাব্যতা সংকটের কারণে ফেরি চলাচল মারাত্মকভাবে ব্যাহত হচ্ছে। এতে উভয় ঘাটে সৃষ্টি হয়েছে তীব্র যানজট। পাটুরিয়ায় শতাধিক যাত্রীবাহী বাসসহ চার শতাধিক পণ্যবোঝাই ট্রাক আটকে রয়েছে।

জানাযায় ২৪ অক্টোবর, বুধবার নাব্যতা সংকটের কারণে এ যানজট দেখা দেয়।

শাপলা শালুক ফেরির মাস্টার মো. বাদশা বলেন, ‘এই নৌরুটে নাব্যতা সংকটের কারণে নদীতে ড্রেজিং চলছে, যার কারণে দীর্ঘদিন ধরে দৌলতদিয়া ৫ ও ৬ নম্বর ঘাট বন্ধ। এতে করে পাটুরিয়া থেকে ফেরি চালিয়ে দৌলতদিয়া পৌঁছে ঠিকমতো ঘাট না মেলায় ভোগান্তি বাড়ছে।’

বিআইডব্লিউটিএ আরিচা সেক্টরের কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, পদ্মা নদীতে ডুবোচরের কারণে এই সংকট দেখা দিয়েছে। গত কয়েক সপ্তাহ ধরে দৌলতদিয়ার দুটি ঘাট বন্ধ থাকায় মাত্র চারটি ঘাট দিয়ে ফেরিতে যানবাহন পারাপার চলছে। এতে করে যাত্রীবাহী বাসগুলোকে নদী পার হতে দেড় থেকে দুই ঘণ্টা ধরে অপেক্ষা করতে হচ্ছে। ফলে পণ্যবোঝাই ট্রাকগুলো পারাপারে দুই থেকে তিন দিন পর্যন্ত আটকে থাকতে হচ্ছে।

বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া কার্যালয় সূত্র জানায়, এই নৌরুট দিয়ে প্রতিদিন ছোট-বড় চার থেকে সাড়ে চার হাজার যানবাহন ও লক্ষাধিক মানুষ নদী পার হয়। এই রুটে ১৮টি ফেরি থাকলেও বেশ কিছুদিন ধরে বিকল হয়ে ভাসমান কারখানায় মেরামতে আছে কয়েকটি ফেরি। মেরামতের পর কয়েক দিন চলার পর আবারও বিকল হচ্ছে ফেরিগুলো।

বিআইডব্লিউটিসি আরিচা সেক্টরের এজিএম জিল্লুর রহমান বলেন, ‘বর্তমানে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে ১৭টি ফেরি চলাচল করছে। এর মধ্যে রো রো সাতটি, কে টাইপ দুটি ও ইউটিলিটি আটটি। নদীতে নাব্যতা সংকটের কারণে ফেরি চলাচলে বিঘ্ন ঘটার পাশাপাশি ফেরির ট্রিপ সংখ্যাও কমে গেছে।’

কয়েকজন ফেরি চালকের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, পদ্মায় নাব্যতা সংকট ও ড্রেজিং করার কারণে ফেরি চলাচলে সমস্যা হচ্ছে। একইসঙ্গে স্রোতের কারণেও সময় বেশি লাগছে।

দৌলতদিয়া বিআইডব্লিউটিএর প্রকৌশলী শাহ আলম বলেন, ‘ফেরি ঘাটে পানি কমে যাওয়ায় ঘাটগুলো মধ্যবর্তী স্থানে রেখে যানবাহন ওঠানামার কাজ করা হচ্ছে। দৌলতদিয়া ঘাটের কাছে বর্তমানে তিনটি ড্রেজার দিয়ে ড্রেজিং চলছে এবং এ সংকট না সমাধান হওয়া পর্যন্ত বিআইডব্লিউটিএ ড্রেজিং কার্যক্রম চালাবে।’

প্রতিষ্ঠাতা : মরহুম সাংবাদিক আরিফ ইসলাম।
প্রকাশক: ওয়াহিদ সোহেল।
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : ইবনে সৈয়দ পিন্টু।
নির্বাহী সম্পাদক : রাজিব খান। বার্তা সম্পাদক : রুমন রহমান
যোগাযোগ : ১০৭/১, কাকরাইল, ঢাকা-১২১৭।
ইমেইল : AmarFaridpur@gmail.com