আলীপুর কবরস্থানে চিরনিদ্রায় অধ্যাপক মো. মাহাবুবুর রহমান

শহর প্রতিনিধি, আমার ফরিদপুর।
মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক মো. মাহাবুবুর রহমানকে ফরিদপুরে সমাহিত করা হয়েছে। সোমবার দুপুরে শহরের আলীপুর পৌর গোরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।
এর আগে বেলা ১১টার দিকে সরকারি রাজেন্দ্র কলেজ মাঠে মাহাবুবুর রহমানের তৃতীয় ও শেষ জানাজা হয়।

জানাজার আগে বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি কার্যালয়, রাজনৈতিক দল, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান মরহুমের কফিনে ফুলেল শ্রদ্ধা নিবেদন করে।
জানাজার আগে শ্রদ্ধা জানিয়ে বক্তব্য দেন জেলা প্রশাসক উম্মে সালমা তানজিয়া, সরকারি রাজেন্দ্র কলেজের অধ্যক্ষ মোশাররফ আলী এবং মরহুমের ছেলে আবিদুর রহমান শেষ শ্রদ্ধা জানিয়ে বক্তব্য দেন।

জানাজায় অন্যদের মধ্যে ফরিদপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. লোকমান হোসেন মৃধা, স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক মো. এরাদুল হকসহ কয়েকশ’ মুসল্লি অংশ নেন। জানাজায় ইমামতি করেন মাওলানা আব্দুল কাশেম কাইউমী। পরে রোভার স্কাউটের পক্ষ থেকে তাকে গার্ড অব অনার জানানো হয়।

শনিবার (৩ নভেম্বর) দুপুর ১২টা ২০ মিনিটে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান অধ্যাপক মো. মাহাবুবুর রহমান। রবিবার তার মরদেহ দেশে আনা হয়। ওই রাতেই মাউশিতে প্রথম জানাজা এবং সোমবার সকালে মাগুরা জেলার সারঙ্গদিয়া গ্রামে মরহুমের দ্বিতীয় জানাজা হয়।

ফুসফুসের রোগে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ সেপ্টেম্বর থেকে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালের আইসিইউতে ‘ইসিএমও’ সাপোর্টসহ লাইফ সাপোর্টে ছিলেন তিনি।
প্রসঙ্গত, ১৯৬১ সালের ১৬ মে মাগুরা জেলার সারঙ্গদিয়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন মাহাবুবুর রহমান। ১৯৮৮ সালে তিনি ফরিদপুর সরকারি রাজেন্দ্র কলেজে প্রভাষক হিসেবে যোগ দেন। ২০১১ সালের ২০ এপ্রিল তিনি ওই কলেজের অধ্যক্ষ হন। পরে তিনি ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেন। মৃত্যুর সময় মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

মৃত্যুকালে তিনি বাবা, স্ত্রী এবং এক ছেলে ও এক মেয়ে রেখে গেছেন।

প্রতিষ্ঠাতা : মরহুম সাংবাদিক আরিফ ইসলাম।
প্রকাশক: ওয়াহিদ সোহেল।
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : ইবনে সৈয়দ পিন্টু।
নির্বাহী সম্পাদক : রাজিব খান। বার্তা সম্পাদক : রুমন রহমান
যোগাযোগ : ১০৭/১, কাকরাইল, ঢাকা-১২১৭।
ইমেইল : AmarFaridpur@gmail.com