‘আইনজীবীদের সহায়তা ও বিচারকদের যথাযথ প্রচেষ্টার অভাব মামলার দীর্ঘসূত্রিতার একটি প্রধান কারণ’

কে এম রুবেল, ফরিদপুর।
ফরিদপুরের জেলা ও দায়রা জজ মো. হেলাল উদ্দিন বলেছেন, এ কথা অস্বীকার করার উপায় নেই, আইনজীবীদের কাছ থেকে যথাযথ সাহায্য না পাওয়া এবং বিচারকদের যতটা প্রচেষ্টা নেওয়া উচিত ততটা না নেওয়া মামলা নিস্পত্তির ক্ষেত্রে দীর্ঘসূত্রিতার একটি বড় কারন।’

ফরিদপুরে এক কর্মশালায় সভাপতির বক্তব্য প্রদান কালে কথাগুলি বলেন জেলা জজ।
বেলা ১১টার দিকে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের মিলনায়তনে ‘উন্নয়নের অগ্রযাত্রায়, সরকারি আইনি সেবার সাফল্য-প্রচার ও প্রসারে প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার ভূমিকা’-শীর্ষক এ কর্মশালার আয়োজন করে জেলা আইনগত সহায়তা প্রদান কমিটি।

জেলা জজ বলেন, বিচারের দীর্ঘসূত্রিতার আরও যে সব কারন রয়েছে তার মধ্যে বাদী বিবাদীদের বিচারের শেষ দেখে নেওয়ার মানসিকতা। নি¤œ আদালতে রায় হওয়ার পরও বাদী-বিবাদী সন্তুষ্ট না হওয়ায় উচ্চতর আদালতে আপিল করেন। এর কারনে মামলা শেষ হতে বিলম্বিত হয়। তিনি বলেন, আপোষের মাধ্যমে পারিবারিক বিরোধ নিষ্পত্তির উপর জোর দিতে হবে।

জেলা জজ বলেন, পারিবারিক বিরোধ মামলাগুলোতে আপোষ মীমাংসার সুযোগ রয়েছে। এ কাজটি করছে জেলা আইনগত সহায়তা প্রদান কমিটি। তিনি বলেন, আমাদের মানসিকতার পরিবর্তন করতে হবে। বিচার সংক্রান্ত কাজে যারা নিয়োজিত তাদের আন্তরিকতা ও সততার সাথে দায়িত্ব পালন করতে হবে।

ওই কর্মশালায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন মূখ্য বিচারিক হাকিম আব্দুল হামিদ, ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জামাল পাশা, ফরিদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ইমতিয়াজ হাসান রুবেল, সাধারণ সম্পাদক হাসনউজ্জামান, জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রশিদ।
মুক্ত আলোচনায় অংশ নেন সাংবাদিক প্রবীর কান্তি বালা, শফিকুর রহমান, মনির হোসেন, সঞ্জিব দাস, জাহিদ রিপন, রেজাউল ইসলাম, আইনজীবী শামসুন্নাহার নাইম ও কাজী মেরিনা, বশীর আহমেদ চৌধুরী, ব্লাস্টের হাসিনা বেগম প্রমুখ।

সভায় মাল্টিমিডিয়ার ম্যামে আইন সহায়তা কমিটির বিভিন্ন কার্যক্রম তুলে ধরেন জ্যেষ্ঠ সহকারি জজ নাঈম ফিরোজ ও নওরিন আক্তার।
সভায় জানানো হয় গত জানুয়ারি থেকে অক্টোবর পর্যন্ত জেলা আইন সহায়তা কমিটির উদ্যোগে ১৩১টি মামলা আপোষের মাধ্যমে নিষ্পত্তি হয়েছে। ওই সময়কালে পারিবারিক বিভিন্ন অভিযোগে ২২৩টি মামলা দায়ের করা হয়েছে, এর মধ্যে ৬৮টি মামলার বিচার কার্যক্রম শেষ হয়েছে।

প্রতিষ্ঠাতা : মরহুম সাংবাদিক আরিফ ইসলাম।
প্রকাশক: ওয়াহিদ সোহেল।
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : ইবনে সৈয়দ পিন্টু।
নির্বাহী সম্পাদক : রাজিব খান। বার্তা সম্পাদক : রুমন রহমান
যোগাযোগ : ১০৭/১, কাকরাইল, ঢাকা-১২১৭।
ইমেইল : AmarFaridpur@gmail.com