ফরিদপুরে জেলা ব্রান্ডিং মেলার উদ্বোধন, দর্শনার্থীদের উপচে পড়াভীড়

কে এম রুবেল, ফরিদপুর।
“সোনালি আঁশে ভরপুর, ভালোবাসি ফরিদপুর”- এই শ্লোগানেকে সামনে রেখে ফরিদপুর জেলা ব্র্যান্ড “পাট” ও পাট জাত দ্রব্যকে দেশে ও দেশের বাইরে ছড়িয়ে দেওয়ার লক্ষে ১৫ নভেম্বর থেকে শুরু হয়েছে মাসব্যাপী ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প, তাঁত-বস্ত্র ও পাট পণ্যে জেলা ব্রান্ডিং মেলা। শুক্রবার বিকেলে (৩০ নভেম্বর) মেলার উদ্বোধন করেন মন্ত্রিপরিষদের সচিব (সমন্বয় ও সংস্কার) এন এম জিয়াউল আলম পিএএ। ১৫ নভেম্বর থেকে শুরু হওয়া মেলা চলবে ১৫ডিমেস্বর পর্যন্ত।

ফরিদপুর জেলা পাট বিশ্বমানের। আর সে কারনেই পাটকে সরকারিভাবে ফরিদপুর জেলা ব্র্যান্ড করা হয়েছে পাট ও পাট থেকে উৎপাদিত পন্যকে দেশে ও দেশের বাইরে ছড়িয়ে দেওয়া ও বাজারজাত করার লক্ষে ফরিদপুর জেলা প্রশাসন ও লেডিস ক্লাব এর আয়োজনে ১৫নভেম্বর থেকে সরকারি রাজেন্দ্র করেজ মাঠে শুরু হয়েছে মাসব্যাপী ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প, তাঁত-বস্ত্র ও পাট পণ্য জেলা ব্রান্ডিং মেলা।

মেলায় স্থানপেয়েছে পাটের তৈরি বাহারি পন্য শো পিস, শপিং ব্যাগ, হ্যান্ড ব্যাগ, পর্দা, টেবিল ম্যাট, ফ্লোর ম্যাট, মেয়েদের গহনা, সেন্ডেল এবং ছিকাসহ সামগ্রী। এছাড়াও বিভিন্ন ধরনের তাঁতের তৈরি পোশাক, শাড়ি, থ্রি-পিস। বিভিন্ন ধরনের হস্ত ও কুটির শিল্প, মৃথ শিল্প, খেলনা, ক্রোকারীজ সামগ্রী, কসমেটিকসামগ্রীসহ বাহারি পন্যের ১৩০টি স্টল স্থাপন করা হয়েছে। মেলা চলবে প্রায় এক সাম। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত। দর্শনার্থীদের পদচারনায় মুখরিত হয়ে উঠেছে মেলা প্রঙ্গণ।

দর্শনার্থীরা বলছেন, এই মেলার মাধ্যমে ফরিদপুরকে বিশ্বের দরবারে তুলে ধরা হবে। আর দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা ব্যবসায়ীরা বলছেন, মেলায় এসেছি ব্যবসা করার জন্য। আসা করছি ব্যবসা ভাল হবে।

মেলায় শিশুদের বিনোদনের জন্য থাকছে কিডস্ কর্ণার, চরকি, নাগরদোলা, ওয়াটার বল, ট্রেনসহ বিভিন্ন আয়োজন। এছাড়াও মেরায় স্থান পেয়েছে বিভিন্ন ধরনের খাবারের দোকান। আছে নামাজের স্থান।

শুক্রবার বিকেলে ফিতা কেঁটে ও বেলুন উড়িয়ে মেলার উদ্বোধন করেন মন্ত্রিপরিষদের সচিব (সমন্বয় ও সংস্কার) এন এম জিয়াউল আলম পিএএ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক বেগম উম্মে সালমা তানজিয়া, পুলিশ সুপার মো. জাকির হোসেন খান, স্থানীয় সরকার বিভাগের ফরিদপুরের উপ-পরিচালক মো. এরাদুর হক, ফরিদপুর চেম্বারের সভাপতি মো. জাহাঙ্গীর হোসেন মিয়া।

জেলা প্রশাসক বেগম উম্মে সালমা তানজিয়া বলেন, ব্রান্ডিংকে কেন্দ্র করে আমরা অনেককিছু করছি। আমাদের ব্রান্ডিং পন্য পাট। পাট শিল্পটাকে আরও কিভাবে দেশে ও দেশের বাইরে এটার ব্যাপকতা আনতে পারি সেই উদ্দেশ্যে এই মেলা। আর একটা হচ্ছে প্লাস্টিকের বিকল্প। আর পাটকেই প্লাস্টিকের বিকল্প হিসাবে ভাবা হচ্ছে। আর ব্রান্ডিংটাকে পরিচিত করার জন্য এই মেলার আয়োজন।

মন্ত্রিপরিষদের সচিব (সমন্বয় ও সংস্কার) এন এম জিয়াউল আলম পিএএ বলেন, ফরিদপুরের পাটের একটি বিশেষ বিশেসত্ব আছে। যার কারণে বিশ্ব দরবারে এই পাটের আঁশাটা সমাদ্রিত। জেলা প্রশাসক সেই পাটকে জেলা ব্রান্ডিং হিসাবে নির্বাচিত করেছেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বিশ্বাস করেন সেটি হচ্ছে উন্নয়ন শুধু ঢাকায় হলে হবেনা। উন্নয়ন সারা দেশে হতে হবে। সেই দৃষ্টি কোন থেকে জেলা ব্রান্ডিং ৬৪ জেলার ব্রান্ডিং অত্যান্ত গুরুত্ব বহণ করে। সেই কারনেই ফরিদপুর যে বিষয়টি চয়েজ করেছে “সোনালি আঁশে ভরপুর, ভালোবাসি ফরিদপুর” এটি সময় উপযোগী হয়েছে।

প্রতিষ্ঠাতা : মরহুম সাংবাদিক আরিফ ইসলাম।
প্রকাশক: ওয়াহিদ সোহেল।
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : ইবনে সৈয়দ পিন্টু।
নির্বাহী সম্পাদক : রাজিব খান। বার্তা সম্পাদক : রুমন রহমান
যোগাযোগ : ১০৭/১, কাকরাইল, ঢাকা-১২১৭।
ইমেইল : AmarFaridpur@gmail.com